মোঃ ফাহিম মোন্তাছির মামুন, পাবনা জেলা প্রতিনিধি:
দেশব্যাপী চলছে ধর্ষণের মহামারী। ব্যাপক হারে যা বেড়ে চলেছে প্রতিনিয়ত। ধর্ষণের একমাত্র শাস্তি মৃত্যুদন্ডের দাবিতে বিভিন্ন জেলাতে চলছে প্রতিবাদ মূলক কর্মসূচি। তারই ধারাবাহিকতায় দেশব্যাপী সংঘটিত যৌন হয়রানি ও ধর্ষণের বিরুদ্ধে এবং ধর্ষণের একমাত্র শাস্তি মৃত্যুদন্ডের দাবিতে পাবনায় মানববন্ধন করেছে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট পাবনা।

বৃহস্পতিবার (৮ অক্টোবর- ২০২০) পাবনা প্রেসক্লাবের সামনে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট পাবনা’র সভাপতি আবুল কাশেম’র সভাপতিত্ত্বে ও ইছামতী থিয়েটার’র পরিচালক ভাস্কর চৌধুরীর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন পাবনা প্রেসক্লাবের সভাপতি এবিএম ফজলুর রহমান। বক্তব্যে বলেন ধর্ষণের একমাত্র শাস্তি হিসেবে প্রকাশ্যে মৃত্যুদন্ডের জোর দাবি আজ প্রতিটি মানুষের চাওয়া আমি সে দাবীর প্রতি সমর্থন জানাচ্ছি।

সে সময় আরও বক্তব্য রাখেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট পাবনার যুগ্ম সম্পাদক ও উত্তরণ সাহিত্য আসর পাবনার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি কবি গল্পকার আলমগীর কবীর হৃদয়, উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী পাবনা’র সাধারণ সম্পাদক দিবাকর চক্রবর্তী, অতএব নাট্যগোষ্টির সভাপতি ফজলুল হক খান, দর্পন সাংস্কৃতিক গোষ্ঠীর সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান খোকন, পাবনা ব্যান্ড এ্যাসোসিয়েশন’র সভাপতি মাহবুবুল আলম লিটন, গণশিল্পী সংস্থা পাবনা’র সাধারণ সম্পাদক অ্যাডঃ মোসফেকা জাহান কনিকা, বিপ্লব ভৌমিক, শহীদ ফজলে রাব্বী স্মৃতি পরিষদের সাধারন সম্পাদক সালফি আল ফাত্তাহ, পাবনা রিপোর্টার্স ইউনিট’র সাধারণ সম্পাদক কাজী মাহবুব মোর্শেদ বাবলা, তারুণ্যের অগ্রযাত্রা’র উদ্যোক্তা জুবায়ের খান প্রিন্স, সোনার বাংলা মা একাডেমি’র পরিচালক সুমন খান, রূপান্তর সাংস্কৃতিক গোষ্ঠী’র সাধারণ সম্পাদক দেওয়ান মাজহার, উত্তরণ সাহিত্য আসর পাবনা’র সহ সাহিত্য সম্পাদক শ্রী জীবন কুমার সরকার, গোধুলি আড্ডা’র সেলিম রেজা, পথ সাহিত্য’র সাধারণ সম্পাদক আর কে আকাশ প্রমুখ, উত্তরণ সাহিত্য আসরের সাংগঠনিক সম্পাদক রাফিদ আহমেদ, সাংস্কৃতিক সম্পাদক শ্রাবন্তী মায়া, প্রচার সম্পাদক রেজা নাবিল, সদস্য আহাদুজ্জামান শাকিল প্রমুখ।

উক্ত মানববন্ধনে উত্তরণ সাহিত্য আসর পাবনা, যুগান্তর স্বজন সমাবেশ পাবনা, গ্রাম থিয়েটার বণমালী অঞ্চল পাবনা, ব্যান্ড এ্যাসোসিয়েশন পাবনা, তারুণ্যের অগ্রযাত্রা বাংলাদেশ সহ সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট পাবনার জোট ভুক্ত ৩৩টি সংগঠনের সাথে বিভিন্ন সাহিত্য সাংস্কৃতিক সংগঠন এর শতাধিক সদস্য-কর্মী উপস্থিত ছিলেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *