সাখাওয়াত হোসেন ভূঞাঁ, ছাগলনাইয়া উপজেলা প্রতিনিধি:
এইবার আপন চাচা কর্তৃক ভাতিজী (৪ বছর বয়সী) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগের আলোকে ধর্ষক চাচা মোঃ ইমন ফারুক বাদশা (২০)কে আটক করেছে ছাগলনাইয়া থানা পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে ৯ অক্টোবর ছাগলনাইয়া উপজেলার মহামায়া ইউনিয়নের উত্তর যশপুর গ্রামে।

জানা যায়, আপন চাচা মোঃ ইমন ফারুক বাদশা শিশু ভিকটিমকে চিপস কিনে দেওয়ার কথা বলিয়া নিজের ঘরে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে। এইভাবে ছাগলনাইয়া থানায় ভিকটিমের মা বাদী হয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করলে ছাগলনাইয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ ধর্ষককে পৌরসভার বাঁশপাড়া এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়।

এ ব্যাপারে ছাগলনাইয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ জানান, ধর্ষককে বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। ভিকটিমকে চিকিৎসার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

ধর্ষক মোঃ ইমন ফারুক বাদশা (২০) ফেনী জেলার ছাগলনাইয়া উপজেলার মহামায়া ইউনিয়নের উত্তর যশপুর গ্রামের রবিউল হক কন্ট্রাকটর বাড়ীর মৃত রবিউল হক কন্ট্রাক্টর ও কমলা আক্তার সন্তান।

এই ব্যাপারে ছাগলনাইয়া থানার এফবি প্রেইজে একটি স্ট্যাস্টাস দেওয়া হয়, স্ট্যাস্টাসটি হুবহু তুলে ধরা হলোঃ

চাচা কর্তৃক ০৪ বছরের ভাতিজী ধর্ষন মামলার আসামী গ্রেফতার।

ফেনী জেলার মাননীয় সুযোগ্য পুলিশ সুপার জনাব খোন্দকার নূরুন্নবী বিপিএম, পিপিএম মহোদয়ের বিশেষ দিক নির্দেশনায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ও প্রশাসন) জনাব মাঈনুল ইসলাম, পিপিএম (বার) এর এবং সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার, ছাগলনাইয়া সার্কেল, জনাব নিশান চাকমা এর তত্ত্বাবধানে ছাগলনাইয়া থানার অফিসার ইনচার্জ জনাব মোঃ মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ এর নেতৃত্বে পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জনাব মোঃ মাহবুবুর রহমান, পিপিএম, এসআই মোঃ নাঈম উদ্দিন, এসআই মোঃ জাহাঙ্গীর দর্জি এর সহায়তায় ধর্ষনকারী আসামী মোঃ ইমন ফারুক বাদশা (২০), পিতা- মৃত রবিউল হক কন্ট্রাক্টর, মাতা- কমলা আক্তার, গ্রাম- উত্তর যশপুর (রবিউল হক কন্ট্রাকটর বাড়ী) , থানা- ছাগলনাইয়া, জেলা- ফেনীকে ছাগলনাইয়া থানাধীন বাঁশপাড়া এলাকা হইতে অদ্য ০৯/১০/২০২০খ্রিঃ তারিখ গ্রেফতার করা হয়। বর্নিত আসামী মোঃ ইমন ফারুক বাদশা শিশু ভিকটিমকে চিপস কিনে দেওয়ার কথা বলিয়া ধর্ষন করে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *