জিন প্রকৌশলের মাধ্যমে ডিএনএ সম্পাদনার ‘সূক্ষ্মতম’ কৌশল উদ্ভাবনের স্বীকৃতিতে চলতি বছর রসায়ন শাস্ত্রের নোবেল পেয়েছেন দুই বিজ্ঞানী।

রয়্যাল সুইডিশ অ্যাকাডেমি অফ সায়েন্সেস বুধবার এ পুরস্কারের জন্য জার্মানির গবেষক ইমানুয়েল কার্পেন্টার এবং যুক্তরাষ্ট্রের জেনিফার এ ডাউডনার নাম ঘোষণা করে।

নোবেল কমিটি বলেছে, এ দুই গবেষকের উদ্ভাবিত সিআরআইএসপিআর-সিএএস৯ পদ্ধতি নিখুঁতভাবে জিনোম সম্পাদনার কাজটি সম্ভব করেছে, যার পথ ধরে ক্যান্সারের চিকিৎসায় নতুন পদ্ধতি তৈরি হচ্ছে, আশা জাগছে জন্মসূত্রে পাওয়া বিভিন্ন রোগ নিরাময়ের।

এবারের নোবেল পুরস্কারের এক কোটি সুইডিশ ক্রোনার ভাগ করে নেবেন ইমানুয়েল কার্পেন্টার ও জেনিফার এ ডাউডনা।

লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারির উন্নয়ন ঘটিয়ে মার্কিন বিজ্ঞানী জন বি গুডএনাফ ও এম স্ট্যানলি হুইটিংহ্যাম এবং জাপানের আকিরা ইয়োশিনো গতবছর রসায়ন শাস্ত্রের নোবেল পান।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *